যুদ্ধ ও সংগ্রামে ইতিহাসে জামালপুরে গান্ধী আশ্রম

বৃটিশ শাসন আমলে এ অঞ্চলের মানুষ স্বাধীনতার অগ্রদূত স্বদেশী আন্দোলনে দিক্ষিত হয়ে গোটা বঙ্গভারতে শুরু হয় স্বদেশী আন্দোলন। এ আন্দোলন কে বেগবান করার জন্য ১৯৩৪সালে ...বিস্তারিত

বৃটিশ বিরোধী সন্যাসী আন্দোলনের কেন্দ্র ছিলো জামালপুরের দয়াময়ী মন্দির

বৃটিশ বিরোধী সন্যাসী আন্দোলনের ফকির মজনুশাহের আস্তানা ছিলো জামালপুরের দয়াময়ী মন্দির। এই মন্দিরটি ইতিহাসের কালের সাক্ষী। ইতিহাসবিদের মতে, সে সময় হিন্দু সন্যাসী ও মুসলিম সন্যাসীদের ...বিস্তারিত

জামালপুরে নকশি কাথা শিল্পে গ্রামীন মহিলারা আত্মকর্মসংস্থান খুঁজে পেয়েছে

সরকার গ্রামীন মহিলাদের আত্মকর্মসংস্থান ও গ্রামীন অর্থনীতি চাঙ্গা করার লক্ষ্যে একের পর এক প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। এ প্রকল্পের আওতায় জামালপুর জেলার ৭টি উপজেলায় নকশি কাথা ...বিস্তারিত

জামালপুরে পাট চাষে হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ

পাট চাষ সর্মৃদ্ধ এলাকা ছিলো জামালপুর। এক সময় জামালপুরে ব্যপক পাট চাষ হতো। ফলনও বাম্পার হতো। এখন পাট চাষ অনেকাংশে কমে গেছে। গণতান্ত্রিক আওয়ামীলগ সরকার ...বিস্তারিত

জামালপুরে হারিয়ে যাচ্ছে মৃৎশিল্প

আওয়ামীলীগ সরকার রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় আসার পর থেকে আবহমান বাংলার ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার জন্য আপ্রান চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে জামালপুরের হারানো ঐতিহ্য মৃৎ শিল্প টিকিয়ে রাখতে ...বিস্তারিত

হারিয়ে গেছে জামালপুরের ঐতিহ্য কাসা শিল্প

ইতিহাস ও ঐতিহ্যের দিক দিয়ে জামালপুরের খ্যাতি ছিলো। কাসা শিল্পের জন্য বিখ্যাত। আজ কাসা শিল্প হারিয়ে গেছে। যে কয়েক জন ব্যক্তি এ শিল্প টিকিয়ে রেখেছে ...বিস্তারিত

 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: খন্দকার সোহাগ হাছান

সহ বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান
সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত নিউজপোর্টাল গভঃ রেজিঃ নং ১১৩

আজ বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ, ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুদ্ধ ও সংগ্রামে ইতিহাসে জামালপুরে গান্ধী আশ্রম

বৃটিশ শাসন আমলে এ অঞ্চলের মানুষ স্বাধীনতার অগ্রদূত স্বদেশী আন্দোলনে দিক্ষিত হয়ে গোটা বঙ্গভারতে শুরু হয় স্বদেশী আন্দোলন। এ আন্দোলন কে বেগবান করার জন্য ১৯৩৪সালে জামালপুর কংগ্রেসের সম্পাদক নাসির উদ্দিন সরকার মেলান্দহ উপজেলার কাপাসহাটিয়া গ্রামে গড়ে তোলেন গান্ধী আশ্রম। যা যুদ্ধ ও সংগ্রামের কালের সাক্ষি হয়ে আজও অবস্থান করছে। জানা যায়, গান্ধী আশ্রমটি ছিলো স্বাধীনতাকামী ...বিস্তারিত

বৃটিশ বিরোধী সন্যাসী আন্দোলনের কেন্দ্র ছিলো জামালপুরের দয়াময়ী মন্দির

বৃটিশ বিরোধী সন্যাসী আন্দোলনের ফকির মজনুশাহের আস্তানা ছিলো জামালপুরের দয়াময়ী মন্দির। এই মন্দিরটি ইতিহাসের কালের সাক্ষী। ইতিহাসবিদের মতে, সে সময় হিন্দু সন্যাসী ও মুসলিম সন্যাসীদের পদচারনায় ভরপুর থাকতো। সেই থেকে জমালপুরের আদি নাম ছিলো সন্যাসী নগর। ফকির মজনু শাহ ছিলো সন্যাসীদের নেতা। জানা যায়, আজ থেকে তিনশ বছর আগে বাংলা ১১০৪ সনে বাংলার নবাব মুর্শিদ ...বিস্তারিত

জামালপুরে নকশি কাথা শিল্পে গ্রামীন মহিলারা আত্মকর্মসংস্থান খুঁজে পেয়েছে

সরকার গ্রামীন মহিলাদের আত্মকর্মসংস্থান ও গ্রামীন অর্থনীতি চাঙ্গা করার লক্ষ্যে একের পর এক প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। এ প্রকল্পের আওতায় জামালপুর জেলার ৭টি উপজেলায় নকশি কাথা শিল্প গড়ে উঠেছে। নকশি কাথা শিল্পের সাথে অসংখ্য গ্রামীন মহিলা জড়িত হওয়ায় আত্মকর্মসংস্থানের পথ খুঁজে পেয়েছেন। ফলে গ্রামীন অর্থনীতিতে চাঙ্গা ভাব ফিরে এসেছে। জানা যায়,জামালপুর সদর উপজেলা কৃষি সর্মৃদ্ধ এলাকা ...বিস্তারিত

জামালপুরে পাট চাষে হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ

পাট চাষ সর্মৃদ্ধ এলাকা ছিলো জামালপুর। এক সময় জামালপুরে ব্যপক পাট চাষ হতো। ফলনও বাম্পার হতো। এখন পাট চাষ অনেকাংশে কমে গেছে। গণতান্ত্রিক আওয়ামীলগ সরকার রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় আসার পর থেকে কৃষি শিল্পে ব্যপক আকারে বিপ্লব ঘটে। পাট চাষ কে জনপ্রিয় করার লক্ষ্যে সরকার কৃষি বিভাগের মাধ্যমে ব্যপক কর্মসূচী হাতে নিয়েছে। সরকারের এই সফল উদ্যোগ বাস্তবায়িত ...বিস্তারিত

জামালপুরে হারিয়ে যাচ্ছে মৃৎশিল্প

আওয়ামীলীগ সরকার রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় আসার পর থেকে আবহমান বাংলার ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার জন্য আপ্রান চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে জামালপুরের হারানো ঐতিহ্য মৃৎ শিল্প টিকিয়ে রাখতে বিশেষ কর্মসূচী হাতে নিয়েছেন। শহরের পালপাড়া ঘিরে এই মৃৎশিল্প। সরকারের এই সফল উদ্যোগ জেলা প্রশাসন বাস্তবায়ন করছেন। ফলে মৃৎশিল্প স্বগৌরবে প্রান ফিরে পাচ্ছে। জানা যায় জামালপুর জেলা শহরের পালপাড়া ও ...বিস্তারিত

হারিয়ে গেছে জামালপুরের ঐতিহ্য কাসা শিল্প

ইতিহাস ও ঐতিহ্যের দিক দিয়ে জামালপুরের খ্যাতি ছিলো। কাসা শিল্পের জন্য বিখ্যাত। আজ কাসা শিল্প হারিয়ে গেছে। যে কয়েক জন ব্যক্তি এ শিল্প টিকিয়ে রেখেছে তারাও এ পেশা ধরে রাখতে পারছে না। ফলে কাসা শিল্প বিলীন হয়ে যাচ্ছে। জানা যায়, জামালপুর সদর উপজেলা ও জেলা শহরে সকাল বাজার এলাকায় কাসা শিল্প ছিলো। আজ থেকে দেড়শ ...বিস্তারিত

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: খন্দকার সোহাগ হাছান

সহ বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান
সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা প্রগতি স্বরণী বাড্ডা ঢাকা-১২১২ | ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Phone: +8801714043198, Email: hbnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © HBnews24.com