মাগুরার চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার পলাতক প্রধান আসামিকে রাজধানীর তেঁজগাও থেকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৩।

মাগুরা জেলার সদর থানাধীন চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার পলাতক প্রধান আসামি অনুপ কুমার চাকী (৩০)’কে রাজধানীর তেঁজগাও এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৩।

রাজধানীর তেঁজগাও এলাকায় ১৬/০৪/২০২৪ তারিখ রাতে অভিযান পরিচালনা করে মাগুরা জেলার সদর থানাধীন চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার পলাতক প্রধান আসামি ১। অনুপ কুমার চাকী (৩০), পিতা-নিখিল কুমার চাকী, গ্রাম- গাঁড়াগঞ্জ (চাকীপাড়া), থানা- শৈলকুপা, জেলা- ঝিনাইদহ’কে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৩।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও অনুসন্ধানে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত আসামী অনুপ কুমার চাকী একজন লম্পট প্রকৃতির ধুরন্ধর লোক। আসামীর সাথে ভিকটিমের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচয় হয়। কথোপকথনের এক পর্যায়ে আসামি জানতে পারে, ভিকটিম ০৮ বছর আগে ডিভোর্স প্রাপ্ত হয় এবং তার ০৯ বছর বয়সী একজন পুত্র সন্তান রয়েছে। ভিকটিমের দুর্বলতার সুযোগ কাজে লাগিয়ে আসামি তার যৌন চাহিদা মেটাতে বিভিন্নভাবে ফাঁদ পাতে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচয়ের সূত্র ধরে ভিকটিমের বাড়ীতে আসামি আসা যাওয়া শুরু করে। ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের কুপ্রস্তাব দিলে ভিকটিম ঘৃণাভরে তা প্রত্যাখ্যান করে। পরে ভিকটিমকে ঝিনাইদহে একটি মন্দিরে নিয়ে সিঁদুর পড়িয়ে বিয়ের মিথ্যে নাটক সাজিয়ে অবৈধ সর্ম্পক স্থাপন করে। এই ঘটনার পরবর্তীতে আসামি ভিকটিমের পরিবারের অনুপস্থিতিতে ভিকটিমের বাড়িতে গিয়ে বিভিন্নভাবে ভয়-ভীতি ও প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ভিকটিম বিবাহের রেজিস্ট্রেশনের কথা বললে আসামি তাকে বিবাহ করতে অস্বীকার করে। ভিকটিম উপায়ন্তর না পেয়ে আসামির বাড়িতে গিয়ে ঘর-সংসার করার কথা বললে আসামি বিবাহের কথা অস্বীকার করে এবং ভিকটিমকে বেদম প্রহার করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। অসহায় ভিকটিম এরপরও বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকলে, সে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায় এবং ভিকটিম ও তার পরিবারকে হত্যা ও সামাজিক যোগযোগের মাধ্যমে ভিকটিম এর অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দিবে বলে হুমকি দেয়। এই বিষয়ে ভিকটিমের পরিবার এবং এলাকাবাসী জানতে পারলে ভিকটিম মাগুরা জেলার নারী ও শিশু নিযার্তন দমন ট্রাইব্যুনালে ২০০০ সালের নারী ও শিশু দমন আইনের ৯(১) ধারার অভিযোগে নালিশী দরখাস্ত করে। পরবর্তীতে মাগুরা সদর থানায় গ্রেফতারকৃত অনুপ কুমার চাকীর বিরুদ্ধে গত ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ তারিখ একটি ধর্ষণ মামলা রুজু হয়।

গ্রেফতারকৃত অনুপ কুমার চাকীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের হওয়ার পরপরই সে স্থান পরিবর্তন করে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পলাতক জীবনযাপন করে আসছিল।

গ্রেফতারকৃত আসামির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
ঢাকা,বুধবার ১৭ এপ্রিল এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments Box

সর্বশেষ আপডেট



» প্রস্তুত জাতীয় ঈদগাহ,কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে জাতীয় ঈদগাহসহ পুরো ঢাকায়

» ঈদের আগের দিনও রাজধানী ছাড়ছেন অনেক মানুষ

» সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে দেশের বিভিন্ন জায়গায় ঈদুল আজহা উদযাপন

» স্পেনের কাছে ৩-০ গোলের হার দিয়ে এবারের মিশন শুরু করেছে ক্রোয়েশিয়া

» বর্তমানে বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে চরম সংকটে রয়েছে-জিএম কাদের

» কুয়াকাটায় পর্যটক বরণে পুরোপুরি প্রস্তুতি নিয়েছে পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা

» ময়মনসিংহের ভালুকায় কাভার্ডভ্যান ও সিএনজির সংঘর্ষে দুইজন নিহত

» আজ পবিত্র হজ।ধ্বনিত হচ্ছে ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে

» এইচ,এস,সি ৯১ ব্যাচের আইরিন ও ওবায়দুল কবিরের স্বরনে দোযা ওমমিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত।

» গাড়ির চাপ থাকলেও রাজধানীসহ কোথাও কোনো যানজট নেই

 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: খন্দকার সোহাগ হাছান

সহ বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান
সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত নিউজপোর্টাল গভঃ রেজিঃ নং ১১৩

আজ রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাগুরার চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার পলাতক প্রধান আসামিকে রাজধানীর তেঁজগাও থেকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৩।




মাগুরা জেলার সদর থানাধীন চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার পলাতক প্রধান আসামি অনুপ কুমার চাকী (৩০)’কে রাজধানীর তেঁজগাও এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৩।

রাজধানীর তেঁজগাও এলাকায় ১৬/০৪/২০২৪ তারিখ রাতে অভিযান পরিচালনা করে মাগুরা জেলার সদর থানাধীন চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার পলাতক প্রধান আসামি ১। অনুপ কুমার চাকী (৩০), পিতা-নিখিল কুমার চাকী, গ্রাম- গাঁড়াগঞ্জ (চাকীপাড়া), থানা- শৈলকুপা, জেলা- ঝিনাইদহ’কে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৩।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও অনুসন্ধানে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত আসামী অনুপ কুমার চাকী একজন লম্পট প্রকৃতির ধুরন্ধর লোক। আসামীর সাথে ভিকটিমের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচয় হয়। কথোপকথনের এক পর্যায়ে আসামি জানতে পারে, ভিকটিম ০৮ বছর আগে ডিভোর্স প্রাপ্ত হয় এবং তার ০৯ বছর বয়সী একজন পুত্র সন্তান রয়েছে। ভিকটিমের দুর্বলতার সুযোগ কাজে লাগিয়ে আসামি তার যৌন চাহিদা মেটাতে বিভিন্নভাবে ফাঁদ পাতে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচয়ের সূত্র ধরে ভিকটিমের বাড়ীতে আসামি আসা যাওয়া শুরু করে। ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের কুপ্রস্তাব দিলে ভিকটিম ঘৃণাভরে তা প্রত্যাখ্যান করে। পরে ভিকটিমকে ঝিনাইদহে একটি মন্দিরে নিয়ে সিঁদুর পড়িয়ে বিয়ের মিথ্যে নাটক সাজিয়ে অবৈধ সর্ম্পক স্থাপন করে। এই ঘটনার পরবর্তীতে আসামি ভিকটিমের পরিবারের অনুপস্থিতিতে ভিকটিমের বাড়িতে গিয়ে বিভিন্নভাবে ভয়-ভীতি ও প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ভিকটিম বিবাহের রেজিস্ট্রেশনের কথা বললে আসামি তাকে বিবাহ করতে অস্বীকার করে। ভিকটিম উপায়ন্তর না পেয়ে আসামির বাড়িতে গিয়ে ঘর-সংসার করার কথা বললে আসামি বিবাহের কথা অস্বীকার করে এবং ভিকটিমকে বেদম প্রহার করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। অসহায় ভিকটিম এরপরও বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকলে, সে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায় এবং ভিকটিম ও তার পরিবারকে হত্যা ও সামাজিক যোগযোগের মাধ্যমে ভিকটিম এর অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দিবে বলে হুমকি দেয়। এই বিষয়ে ভিকটিমের পরিবার এবং এলাকাবাসী জানতে পারলে ভিকটিম মাগুরা জেলার নারী ও শিশু নিযার্তন দমন ট্রাইব্যুনালে ২০০০ সালের নারী ও শিশু দমন আইনের ৯(১) ধারার অভিযোগে নালিশী দরখাস্ত করে। পরবর্তীতে মাগুরা সদর থানায় গ্রেফতারকৃত অনুপ কুমার চাকীর বিরুদ্ধে গত ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ তারিখ একটি ধর্ষণ মামলা রুজু হয়।

গ্রেফতারকৃত অনুপ কুমার চাকীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের হওয়ার পরপরই সে স্থান পরিবর্তন করে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পলাতক জীবনযাপন করে আসছিল।

গ্রেফতারকৃত আসামির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
ঢাকা,বুধবার ১৭ এপ্রিল এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: খন্দকার সোহাগ হাছান

সহ বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান
সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা প্রগতি স্বরণী বাড্ডা ঢাকা-১২১২ | ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Phone: +8801714043198, Email: hbnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © HBnews24.com