পর্যটকদের জন্য নতুন আকর্ষণ কুয়াকাটায় রাখাইন জাদুঘর

পর্যটকদের জন্য নতুন আকর্ষণ রাখাইন জাদুঘর। এটি কুয়াকাটা সৈকত থেকে প্রায় আট কিলোমিটার দূরে মিশ্রিপাড়া নামক গ্রামে দুই শতাংশ জমির উপর নির্মাণ হয়েছে। এখানে রাখাইন সস্প্রদায়ের ব্যবহারের হাজার বছর পুরানো তৈজসপত্রসহ নানান শিল্পকর্ম স্থান পেয়েছে। প্রথম ধাপে, রাখাইনদের ব্যবহারের ২০ ধরনের উপকরণ রাখা হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে রাখাইন ভাষায় তালপাতায় লেখা পুঁথি, সেগুন কাঠের বাক্সসহ বিভিন্ন ধরনের পাত্র। পশুর হাড় দিয়ে তৈরি অস্ত্র, পিতলের ঘণ্টা, হরিণের চামড়াসহ নানান জিনিস। এসব উপকরণ স্থানীয় প্রবীন রাখানইনদের বাড়ি থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়া জাদুঘরের দেয়ালে অঙ্কন করা হয়েছে রাখাইনদের প্রথম রাজা চন্দ্রসূর্য ও শেষ রাজা মহাথামান্দার ছবিও। যা দেখতে ভিড় করছেন পর্যটকরা।
জানা গেছে, ২০২৩ সালে ২৮ সেপ্টেম্বর এ জাদুঘরটি উদ্বোধন করেন কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন। এর মাধ্যমে আগত পর্যটকরা বৌদ্ধবিহার প্রদর্শনের পাশাপাশি রাখাইন জনগোষ্ঠীর ঐতিহ্য-ইতিহাস সম্পর্কে জানার সুযোগ পাচ্ছে। ক্রমশই বিভিন্ন উপকরন সংগ্রহ করে এ জাদুঘরের সংগ্রহশালা সমৃদ্ধ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। স্থানীয় বাসিন্দা মো.আমির হোসেন বলেন, কুয়াকাটায় আগত পর্যটকরা জানতে চায় আদিবাসীদের সেকালের জীবনযাত্রা। এ জনপদ কিভাবে হয়েছে বাসযোগ্য। এসব দেখার জন্য, জানার জন্য ঘুরে বেড়ায় রাখাইন পল্লীতে। এখন এই জাদুঘরের মাধ্যমেই জানতে পারবেন তারা।
পর্যটক শাকিল খান বলেন, রাখাইন জাদুঘরটি অসাধারন। এর পাশে রয়েছে প্রাচীন কুয়া ও ঐতিহ্যবাহী মিশ্রিপাড়া সীমা বৌদ্ধ মন্দির অবস্থিত। এ জাদুঘরটিতে রাখাইনদের ব্যবহৃত পুরনো হারিয়ে যাওয়া বিভিন্ন জিনিসপত্র প্রদর্শন করা হয়েছে। পাশাপাশি দেয়ালে অঙ্কন করা হয়েছে রাখাইন রাজ্য থেকে প্রথম পর্যায়ে ৫০টি পরিবার কীভাবে সাগর পাড়ি দিয়ে উপকূলীয় এলাকায় পৌঁছেছেন এমন দৃশ্য। মিশ্রিপাড়া বৌদ্ধ মন্দিরের পুরোহিত উত্তম ভিক্ষু বলেন, আমরা আসা করছি সামনে আরও পর্যটক জাদুঘরে আসতে উৎসাহী হবে।
জাদুঘরের প্রতিষ্ঠাতা রাখাইন মং লাচিং জানান, রাখাইনদের সংস্কৃতির সাথে অন্যদের পরিচয় করিয়ে দিতেই এ উদ্যোগ। তবে এই জাদুঘর পর্যায়ক্রমে সমৃদ্ধ হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের জানান, কুয়াকাটায় যারা বিভিন্ন জায়গা থেকে আসছেন-তারা সহজেই এ জাদুঘর ঘুরে সম্প্রদায়ের ইতিহাস-ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি সম্পর্কে জানতে পারবে।
উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,বুধবার ২৮ জানুয়ারি এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments Box

সর্বশেষ আপডেট



» শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার বিচারের দাবিতে মঙ্গলবার বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

» ঢাবিতে কোটা আন্দোলনকারী ও ছাত্রলীগের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, আহত শতাধিক

» কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত এলাকায় পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালিয়েছে তৃতীয় লিঙ্গের নাগরিকরা

» কলম্বিয়াকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আর্জেন্টিনা

» ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে স্পেন

» জামালপুরে ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙ্গন শুরু

» ঝিনাইদহে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী দিবস পালিত

» সরকারি চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে কোটা বহাল রেখে হাইকোর্টের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত

» কোটা সংস্কারের দাবিতে ঝিনাইদহে সাধারণ ছাত্র ছাত্রীদের বিক্ষোভ সমাবেশ।

» সাম্প্রতিক চীন সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: খন্দকার সোহাগ হাছান

সহ বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান
সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত নিউজপোর্টাল গভঃ রেজিঃ নং ১১৩

আজ মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পর্যটকদের জন্য নতুন আকর্ষণ কুয়াকাটায় রাখাইন জাদুঘর




পর্যটকদের জন্য নতুন আকর্ষণ রাখাইন জাদুঘর। এটি কুয়াকাটা সৈকত থেকে প্রায় আট কিলোমিটার দূরে মিশ্রিপাড়া নামক গ্রামে দুই শতাংশ জমির উপর নির্মাণ হয়েছে। এখানে রাখাইন সস্প্রদায়ের ব্যবহারের হাজার বছর পুরানো তৈজসপত্রসহ নানান শিল্পকর্ম স্থান পেয়েছে। প্রথম ধাপে, রাখাইনদের ব্যবহারের ২০ ধরনের উপকরণ রাখা হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে রাখাইন ভাষায় তালপাতায় লেখা পুঁথি, সেগুন কাঠের বাক্সসহ বিভিন্ন ধরনের পাত্র। পশুর হাড় দিয়ে তৈরি অস্ত্র, পিতলের ঘণ্টা, হরিণের চামড়াসহ নানান জিনিস। এসব উপকরণ স্থানীয় প্রবীন রাখানইনদের বাড়ি থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়া জাদুঘরের দেয়ালে অঙ্কন করা হয়েছে রাখাইনদের প্রথম রাজা চন্দ্রসূর্য ও শেষ রাজা মহাথামান্দার ছবিও। যা দেখতে ভিড় করছেন পর্যটকরা।
জানা গেছে, ২০২৩ সালে ২৮ সেপ্টেম্বর এ জাদুঘরটি উদ্বোধন করেন কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন। এর মাধ্যমে আগত পর্যটকরা বৌদ্ধবিহার প্রদর্শনের পাশাপাশি রাখাইন জনগোষ্ঠীর ঐতিহ্য-ইতিহাস সম্পর্কে জানার সুযোগ পাচ্ছে। ক্রমশই বিভিন্ন উপকরন সংগ্রহ করে এ জাদুঘরের সংগ্রহশালা সমৃদ্ধ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। স্থানীয় বাসিন্দা মো.আমির হোসেন বলেন, কুয়াকাটায় আগত পর্যটকরা জানতে চায় আদিবাসীদের সেকালের জীবনযাত্রা। এ জনপদ কিভাবে হয়েছে বাসযোগ্য। এসব দেখার জন্য, জানার জন্য ঘুরে বেড়ায় রাখাইন পল্লীতে। এখন এই জাদুঘরের মাধ্যমেই জানতে পারবেন তারা।
পর্যটক শাকিল খান বলেন, রাখাইন জাদুঘরটি অসাধারন। এর পাশে রয়েছে প্রাচীন কুয়া ও ঐতিহ্যবাহী মিশ্রিপাড়া সীমা বৌদ্ধ মন্দির অবস্থিত। এ জাদুঘরটিতে রাখাইনদের ব্যবহৃত পুরনো হারিয়ে যাওয়া বিভিন্ন জিনিসপত্র প্রদর্শন করা হয়েছে। পাশাপাশি দেয়ালে অঙ্কন করা হয়েছে রাখাইন রাজ্য থেকে প্রথম পর্যায়ে ৫০টি পরিবার কীভাবে সাগর পাড়ি দিয়ে উপকূলীয় এলাকায় পৌঁছেছেন এমন দৃশ্য। মিশ্রিপাড়া বৌদ্ধ মন্দিরের পুরোহিত উত্তম ভিক্ষু বলেন, আমরা আসা করছি সামনে আরও পর্যটক জাদুঘরে আসতে উৎসাহী হবে।
জাদুঘরের প্রতিষ্ঠাতা রাখাইন মং লাচিং জানান, রাখাইনদের সংস্কৃতির সাথে অন্যদের পরিচয় করিয়ে দিতেই এ উদ্যোগ। তবে এই জাদুঘর পর্যায়ক্রমে সমৃদ্ধ হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের জানান, কুয়াকাটায় যারা বিভিন্ন জায়গা থেকে আসছেন-তারা সহজেই এ জাদুঘর ঘুরে সম্প্রদায়ের ইতিহাস-ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি সম্পর্কে জানতে পারবে।
উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি
পটুয়াখালী,বুধবার ২৮ জানুয়ারি এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: খন্দকার সোহাগ হাছান

সহ বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান
সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা প্রগতি স্বরণী বাড্ডা ঢাকা-১২১২ | ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Phone: +8801714043198, Email: hbnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © HBnews24.com