দাম বাড়ার কারণে পেঁয়াজ কেনা কমিয়েছেন সাধারণ ক্রেতারাও

রাজধানীর বাজারগুলোতে দুইদিনের ব্যবধানেই দ্বিগুণ দাম বেড়ে যায় সব ধরনের পেঁয়াজের।

হঠাৎ এমন অস্বাভাবিক দাম বাড়ার কারণে পেঁয়াজ কেনা কমিয়েছেন সাধারণ ক্রেতারাও। যদিও বাজারে নতুন দেশি পেঁয়াজ উঠতে শুরু করায় এখন আবার দাম কমতে শুরু করেছে।
সোমবার (১১ ডিসেম্বর) রাজধানীর কারওয়ান বাজারের পাইকারি ও খুচরা পেঁয়াজের বাজার ঘুরে এমন চিত্রই দেখা যায়।

এদিন সকালে পাইকারি পেঁয়াজের বাজার ঘুরে দেখা যায়, বর্তমানে আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজ আটশ টাকা পাল্লা (পাঁচ কেজি) বা ১৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। একদিন আগেই যা নয়শ টাকা পাল্লা বা ১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছিল। তারও দুইদিন আগে বিক্রি হয়েছিল ৫০০-৫৫০ টাকা পাল্লা বা ১০০-১১০ কেজি দরে টাকা দরে।

এছাড়া বর্তমানে চীনের পেঁয়াজ পাল্লা ৫৫০-৬০০ টাকা (কেজিতে ১১০-১২০ টাকা), মিশরের পেঁয়াজ ৬২০ টাকা (কেজিতে ১২৪ টাকা), ফরিদপুরের নতুন পেঁয়াজ ৬০০ টাকা (কেজিতে ১২০ টাকা), ফরিদপুরের পুরান পেঁয়াজ ৯৫০ টাকা (কেজিতে ১৯০ টাকা), পাবনার পেঁয়াজ ৯৫০ টাকা (কেজিতে ১৯০ টাকা), রাজশাহীর পেঁয়াজ ৯৫০ টাকায় (কেজিতে ১৯০ টাকা) বিক্রি হচ্ছে।

একই বাজারে একদিন আগেও ফরিদপুরের পুরান পেঁয়াজ প্রতিকেজি ১৯৬ টাকা ও নতুন পেঁয়াজ ১৪০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। পাবনার পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ২শ টাকা দরে। আর চীন থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১৩০ টাকা দরে। গতকালের তুলনায় কিছুটা কমলেও ক্রেতা বাড়েনি। এদিন সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কারওয়ান বাজারের পাইকারি পেঁয়াজের বাজারের চারটি দোকানে পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, এই এক ঘণ্টায় একটিও ক্রেতা আসেনি সেসব দোকানে। পুরো বাজারজুড়েই একই অবস্থা দেখা যায়। হাতে গোনা দুই-একজন ক্রেতা ছাড়া পুরো পেঁয়াজের বাজারই অনেকটা ফাঁকা।

বিক্রেতারা জানান, পেঁয়াজের দাম বাড়ায় ক্রেতারা কম আসছেন। এর কারণে তাদের বিক্রি কমেছে।
ঢাকা,সোমবার ১১ ডিসেম্বর এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments Box

সর্বশেষ আপডেট



» গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক কৃষকের মৃত্যু

» ১৭মে সন্ধ্যা থেকে ২০মে পর্যন্ত তিনদিন বেনাপোল বন্দর দিয়ে ট্যুরিস্ট ও ব্যবসায়ী ভিসায় যাতায়াত বন্ধ

» কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে পাঁচজন নিহত

» নাইজেরিয়ায় এক মসজিদে আগুনে পুরে ১১ মুসল্লি নিহত

» বিএনপির সময় ঋণ খেলাপির তালিকা সবচেয়ে বড় ছিল,এখন জনগণের যে উন্নয়ন হচ্ছে বিএনপির সহ্য হচ্ছে না

» প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানিয়েছেন দলের নেতারা

» বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ

» গাজীপুরের শ্রীপুর রেল স্টেশনে যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন

» রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় রাস্তায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে আনসার সদস্যের মৃত্যু

» ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর বাড়িসহ আশপাশের এলাকায় সচেতনতা জোরদার করার তাগিদ মেয়র আতিকুলের

 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: খন্দকার সোহাগ হাছান

সহ বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান
সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নিবন্ধনপ্রাপ্ত নিউজপোর্টাল গভঃ রেজিঃ নং ১১৩

আজ শনিবার, ১৮ মে ২০২৪ খ্রিষ্টাব্দ, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাম বাড়ার কারণে পেঁয়াজ কেনা কমিয়েছেন সাধারণ ক্রেতারাও




রাজধানীর বাজারগুলোতে দুইদিনের ব্যবধানেই দ্বিগুণ দাম বেড়ে যায় সব ধরনের পেঁয়াজের।

হঠাৎ এমন অস্বাভাবিক দাম বাড়ার কারণে পেঁয়াজ কেনা কমিয়েছেন সাধারণ ক্রেতারাও। যদিও বাজারে নতুন দেশি পেঁয়াজ উঠতে শুরু করায় এখন আবার দাম কমতে শুরু করেছে।
সোমবার (১১ ডিসেম্বর) রাজধানীর কারওয়ান বাজারের পাইকারি ও খুচরা পেঁয়াজের বাজার ঘুরে এমন চিত্রই দেখা যায়।

এদিন সকালে পাইকারি পেঁয়াজের বাজার ঘুরে দেখা যায়, বর্তমানে আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজ আটশ টাকা পাল্লা (পাঁচ কেজি) বা ১৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। একদিন আগেই যা নয়শ টাকা পাল্লা বা ১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছিল। তারও দুইদিন আগে বিক্রি হয়েছিল ৫০০-৫৫০ টাকা পাল্লা বা ১০০-১১০ কেজি দরে টাকা দরে।

এছাড়া বর্তমানে চীনের পেঁয়াজ পাল্লা ৫৫০-৬০০ টাকা (কেজিতে ১১০-১২০ টাকা), মিশরের পেঁয়াজ ৬২০ টাকা (কেজিতে ১২৪ টাকা), ফরিদপুরের নতুন পেঁয়াজ ৬০০ টাকা (কেজিতে ১২০ টাকা), ফরিদপুরের পুরান পেঁয়াজ ৯৫০ টাকা (কেজিতে ১৯০ টাকা), পাবনার পেঁয়াজ ৯৫০ টাকা (কেজিতে ১৯০ টাকা), রাজশাহীর পেঁয়াজ ৯৫০ টাকায় (কেজিতে ১৯০ টাকা) বিক্রি হচ্ছে।

একই বাজারে একদিন আগেও ফরিদপুরের পুরান পেঁয়াজ প্রতিকেজি ১৯৬ টাকা ও নতুন পেঁয়াজ ১৪০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। পাবনার পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ২শ টাকা দরে। আর চীন থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১৩০ টাকা দরে। গতকালের তুলনায় কিছুটা কমলেও ক্রেতা বাড়েনি। এদিন সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কারওয়ান বাজারের পাইকারি পেঁয়াজের বাজারের চারটি দোকানে পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, এই এক ঘণ্টায় একটিও ক্রেতা আসেনি সেসব দোকানে। পুরো বাজারজুড়েই একই অবস্থা দেখা যায়। হাতে গোনা দুই-একজন ক্রেতা ছাড়া পুরো পেঁয়াজের বাজারই অনেকটা ফাঁকা।

বিক্রেতারা জানান, পেঁয়াজের দাম বাড়ায় ক্রেতারা কম আসছেন। এর কারণে তাদের বিক্রি কমেছে।
ঢাকা,সোমবার ১১ ডিসেম্বর এইচ বি নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Facebook Comments Box

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



 

প্রকাশক ও সম্পাদক: কাজী আবু তাহের মো. নাছির।

 

প্রধান নির্বাহী সম্পাদক: আফতাব খন্দকার (রনি)

 

বার্তা সম্পাদক: খন্দকার সোহাগ হাছান

সহ বার্তা সম্পাদক: কামাল হোসেন খান
সহ বার্তা সম্পাদক: কাজী আতিকুর রহমান আতিক (আবির)

প্রধান কার্যালয়: গ-১০৩/২ মধ্যবাড্ডা প্রগতি স্বরণী বাড্ডা ঢাকা-১২১২ | ব্রাঞ্চ অফিস: ২৪৭ পশ্চিম মনিপুর, ২য় তলা, মিরপুর-২, ঢাকা -১২১৬।

Phone: +8801714043198, Email: hbnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © HBnews24.com